মুসলিমদের প্রতি সহানুভূতির কারণেই খুন: পাকিস্তানি সাংবাদিক

মুসলিমদের প্রতি সহানুভূতির কারণেই খুন: পাকিস্তানি সাংবাদিক

ওম পুরির মৃত্যু স্বাভাবিক নয়। ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর এমনই দাবি করেছে মুম্বাই পুলিশ।
একদিকে যখন কিংবদন্তি অভিনেতার মৃত্যু ঘিরে রহস্য দানা বেঁধেছে, ঠিক তখনই বোমা ফাটাল একটি পাক সংবাদমাধ্যম। তাদের দাবি, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং অজিত দোভালের যৌথ ষড়যন্ত্রেই খুন হয়েছেন ওম পুরি।

পাকিস্তানের বোল চ্যানেলের সঞ্চালক একটি আধা ঘণ্টার অনুষ্ঠানে এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রতি সহানুভূতি দেখানোর কারণেই নাকি খুন করা হল তাঁকে।

আরও পড়ুন:  রোহিঙ্গা নারীদের মুখেই শুনুন তাদের করুন কাহীনি মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে এসে কেমন আছেন নির্যাতিতরা। (দেখুন ভিডিও)

এমনকী চ্যানেলের দাবি, এবার একই কারণে প্রাণ কেড়ে নেয়া হতে পারে সুপারস্টার সালমান খান, পাক অভিনেতা ফওয়াদ খান ও মাহিরা খানেরও। নিজেদের সপক্ষে যুক্তিও দিয়েছে চ্যানেলটি।

তাদের দাবি, এই চ্যানেলই প্রথমবার জানিয়েছিল যে ওম পুরির মৃত্যু স্বাভাবিক নয়। প্রয়াত অভিনেতার ঘাড়ে চোটের প্রমাণ পাওয়া গেছে। সেই চোট কীভাবে এল, সে বিষয়েও নিজেদের পক্ষে যুক্তি সাজিয়েছে চ্যানেলটি।

এখানেই শেষ নয়। সঞ্চালক আরও জানাচ্ছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডান হাত অজিত, সালমান খানকে খুন করারও ছক কষেছেন। তাদের কাছে খবর, ছবির শুটিং চলাকালীন দাবাং খানকে খুন করার পরিকল্পনা করেছেন অজিত। পাশাপাশি রইস ছবির অভিনেত্রী মাহিরা খানের প্রাণনাশের সমস্ত ছকও নাকি তৈরি।

আরও পড়ুন:  খ্রিস্টান পিতা-মাতার উৎসাহে পবিত্র কোরআনের হাফেজ হলেন রুশ তরুণী

রইসের প্রচারের জন্য ভারতের আমন্ত্রণ জানানো হবে মাহিরাকে। এবং সেই সুযোগেই হত্যা করা হবে তাঁকে বলে দাবি চ্যানেলের। হত্যা করা হবে ফওয়াদকেও। এই পাক শোয়ের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে।

সূত্র: কালের কণ্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *